রাজ্যে পরিচালনা করার রথী মহারথীদের এই প্রথম দেখল করিমগঞ্জ, প্রস্তাবিত টাউন হলের শিলান্যাস করলেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল

0

একমাত্র বিধানসভা ছাড়া রাজ্য পরিচালনা করার রথী মহারথীদের দেখার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু এবার করিমগঞ্জের ভাগ্যে এলো সেই সুযোগ।

গতকাল করিমগঞ্জে শুরু হয় রাজ্য বিজেপির কার্যকরী সম্মেলন। এর পর একে একে মন্ত্রী বিধায়করা এসে একত্র হন। মঙ্গলবার বিজেপির ভীষ্ম পুরুষ প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কবীন্দ্র পুরকায়স্থ সম্মেলনের সূচনা করেন। গতকাল রাতে এসে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল।

আজ বুধবার সকাল ১০:২০ মিনিটের সময় দলের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের সূচনা হয়। পতাকা উত্তোলন করেন দলের রাজ্যিক সভাপতি রঞ্জিত দাস। স্বাগতিক বক্তব্যও তিনি রাখেন। বক্তব্যে তিনি বলেন, বরাক উপত্যকা থেকেই বিজেপির যাত্রা শুরু হয়েছিল আসামে। ১৯৯১ সালের নির্বাচনে গোটা আসামে ১০ আসন লাভ করে বিজেপি।এর মধ্যে নয়টি আসনই ছিল বরাকের। বরাকের এই বিজেপিপ্রীতি দেখেই তিনি দলে যোগদান করেছেন বলে জানান রঞ্জিত দাস।

রঞ্জিত দাস আজ কার্যকর্তা সম্মেলনে বিজেপি যে অপ্রতিরোধ্য গতিতে ছুটে চলেছে তা গর্বের সহিত উল্লেখ করেন।

আজ মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল করিমগঞ্জের প্রস্তাবিত টাউন হলের শিলান্যাস করেন। তবে তিনি কোনো বক্তব্য রাখেননি। শিলান্যাস করে তিনি হাইলাকান্দির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। হাইলাকান্দিতে তিন জেলার ডিসি সহ প্রশাসননিক কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বিকেল ৫ টায় ফের আসবেন করিমগঞ্জ সম্মেলন স্থলে। এরপর তিনি বক্তব্য রাখবেন।

সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রামেশ্বর তেলি, সিদ্ধার্থ ভট্টাচার্য, পরিমল শুক্লবৈদ্য, বিধায়ক কৃষ্ণেন্দু পাল, বিধায়ক বিজয় মালাকার, সাংসদ কৃপানাথ মালাহ সহ অন্যান্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here