কোভিড-১৯ আবহে শিক্ষায় নতুন মাত্রা এবং কর্মসংস্থানের দাবি উত্থাপন করল এসআইও

0

করোনা আবহে দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রয়েছে। অনলাইনে পঠনপাঠনের প্রচেষ্টা চললেও সেখানে বঞ্চিত হচ্ছে গ্রামবাংলার পড়ুয়ারা। স্টুডেন্টস ইসলামিক অর্গানাইজেশন অফ ইন্ডিয়া, পশ্চিমবঙ্গ শাখার পক্ষ থেকে “উদ্ভূত বিশ্ব পরিস্থিতি, শিক্ষায় নতুন মাত্রা এবং কর্মক্ষেত্রের উদ্ভব” শিরোনামে ২৫শে আগস্ট থেকে ৫ই সেপ্টেম্বর ২০২০ পর্যন্ত সারা রাজ্য জুড়ে শিক্ষা আন্দোলন পরিচালনা করা হয়। এই আন্দোলন উপলক্ষ্যে ভার্চুয়াল ছাত্র সমাবেশের আয়োজন করে সংগঠনটি। এই ভার্চুয়াল সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আজহারউদ্দীন।

তিনি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “করোনা পরবর্তী সময়ে এক চরম বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে আমাদের দেশসহ বিশ্ববাসী। আমাদের সকলকে এই বিপর্যয় মোকাবেলায় একে ওপরের পাশে থাকতে হবে”।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন জামায়াতে ইসলামি হিন্দ,পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সভাপতি মাওলানা আব্দুর রফিক সাহেব। তিনি বলেন, “করোনার প্রকোপে বহু মানুষ কাজ হারিয়েছে। সরকারের উচিত তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা।” তিনি বর্তমান পরিস্থিতিতে এসআইও পশ্চিমবঙ্গের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।”

এই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের প্রধান ড.সাইদুর রহমান। তিনি সমস্ত পড়ুয়াকে ব্যাক্তিকেন্দ্রিক ভাবনার উর্ধে উঠে সামাজিক সমস্যার সমাধানে আরও বেশি এগিয়ে আসতে আহ্বান জানান।

এছাড়াও এদিনের এই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের প্রাক্তন ক্যাবিনেট সদস্য ফিরদৌস আহমেদ বড়ভূঁইয়া।

সংগঠনের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি ওসমান গনি বলেন, “আমাদের এই অভিযানের অন্যতম প্রধান দাবি হল, এলাকাভিত্তিক শিক্ষণ পদ্ধতি চালু করার মাধ্যমে সমস্ত পড়ুয়াদের কাছে শিক্ষাকে সহজলভ্য করে তুলতে হবে।” তিনি দাবি করেন, “আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তাবিত ইসলামি পাঠ্যক্রম অবিলম্বে শুরু করতে হবে।”

এদিকে, সংগঠনের দাবি মেনে ঘোষিত মুর্শিদাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য পদে আবেদনপত্র চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার জন্য তিনি এই সমাবেশের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য উচ্চ শিক্ষা দপ্তরকে সাধুবাদ জানান।

এইদিন সমাবেশে সংগঠনের পক্ষ থেকে মিল্লি আল আমিন কলেজের মাইনরিটি স্ট্যাটাস অবিলম্বে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবিসহ স্কুলছুট নিয়ন্ত্রণ করা এবং নিয়মিত দুর্নীতিমুক্ত চাকরি পরিক্ষা আয়োজন করার দাবি জানানো হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here