রাঙ্গিরঘাট জিপির দুর্নীতির অভিযোগ কারীদের বিরুদ্ধে পাল্টা মন্তব্য সভাপতির

0
ছবি: নিজস্ব
সোনাই উন্নয়ন খণ্ডের অন্তর্গত রাঙ্গিরঘাট জিপির চতুর্দশ অর্থ কমিশনের কাজে দুর্নীতি হয়েছে বলে সম্প্রতি সিইও কে এক স্মারকপত্র দেওয়া হয়। গত বৃহস্পতিবার এক সাংবাদিক সম্মেলন করে জিপির উপ সভানেত্রী জুমি বেগম সহ অন্যান্যরা জিপির সভাপতি ও সচিবের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলেন।

 

এর পরিপ্রেক্ষিতে রবিবার সাংবাদিক বৈঠক ডেকে জিপি সভাপতি শম্ভু রবিদাস অভিযোগ কারীদের বিরুদ্ধে পাল্টা আক্রমণ করে বলেন, রাঙ্গিরঘাট জিপিতে উন্নয়নমূলক কাজকর্ম সঠিকভাবে হচ্ছে। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের কাজ শেষ করে ব্লকে স্মারকপত্র দেওয়া হয়েছে কাজের তদারকি করার জন্য। এবং কাজের কনস্ট্রাকশন কমিটির বিভাগীয় আধিকারিকের অনুমতি রয়েছে।
তিনি বলেন, “জিপির উপ সভানেত্রীর স্বামী চতুর্দশ অর্থ কমিশনের বরাদ্দ কাজ না করে টাকা তুলতে চেয়েছিলেন। আর এটাতে আমি বাধা দেই। এরজন্যই এরা কিছু কুচক্রদের সঙ্গে নিয়ে আবোল তাবোল বলছেন।”

শম্ভু রবিদাস জানান, আমিও চাই জিপিতে নিরপেক্ষ তদন্ত হোক। তদন্ত হলেই বেরিয়ে আসবে আসল ঘটনা। জিপির জনৈক ব্যক্তি লকডাউনের সময় তাকে সরকারি এক হাজার টাকা সাহায্য করা হয়নি বলে অভিযোগ করেছিলেন। এ নিয়ে এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, যে ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন তার পরিবারের রেশন কার্ড রয়েছে। যাদের রেশন কার্ড নেই তাদেরকে সরকারি এক হাজার করে দেওয়া হয়েছে। এদিন সাংবাদিক বৈঠকে ছিলেন গ্রূপ সদস্য শিখা রানী দাস, রমলা বেগম লস্কর সহ অন্যান্যরা।
Advertisement/ https://www.facebook.com/beaconjuniorcollege/

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here