মেঘালয়ে বরাকের শ্রমিকরা শান্তিতে কাজ করতে পারবেন : কনরাড সাংমা

0
ছবি : সংগৃহিত
একে বড়ভূইয়া, তরঙ্গ বার্তা, গুমড়া : বরাকের শ্রমিকরা মেঘালয়ে শান্তিতে রোজগার করতে পারবেন। তাদের ওপর কোন প্রকার অত্যাচার হবে না। নির্বাচনী প্রচারে এসে কাটিগড়ার বাবুর বাজারে এ আশ্বাস দিয়ে গেলেন মেঘালয়ের মুখ্য মন্ত্রী কনরাড সাংমা।
শনিবার বিকেলে বাবুর বাজারে এনপিপি প্রার্থী নাজিয়া ইয়াসমিন-এর প্রচারে এক জ্বালাময়ী ভাষন দিলেন সাংমা। শিলচর লোকসভা আসনে তাঁর দলের প্রার্থী নাজিয়াকে জয়ী করলে শিলচরের উন্নয়ন হবে। সাংমা বলেন, ১৫ বছর আগে শিলচরকে যেভাবে দেখে ছিলেন, ১৫ বছর পরও তার কোন পরিবর্তন হয়নি।
তিনি বলেন, বিহারের ১০/১৫জন প্রতিনিধি কেন্দ্রের ভিত নাড়াতে পারেন, কিন্তু উঃপূর্বের প্রতিনিধিদের কথা শুনেনা কেন্দ্র। এর কারণ ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, উঃ পূর্বের প্রতিনিধিদের মধ্য একতা নেই।

সাংমা আর‍‌ও বলেন, উঃপূর্বের শক্তি বাড়াতে তিনি প্রার্থী দিয়েছেন। মিজোরাম, মনিপুর, বরাক ও মেঘালয় মিলে উত্তর পূর্বের শক্তি বাড়িয়ে কেন্দ্রের ভিত কাঁপিয়ে তুলা সম্ভব। এজন্য প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন। সাংমা কারো নাম না নিয়ে এদিন উঃপূর্বের প্রতিনিধিদের সমালোচনা করতেও পিছ পা হননি।
তিনি বলেন, অবৈধ বাংলাদেশীদের আশ্রয় দিচ্ছেন বরাকের প্রতিনিধিরা। তাঁর সরকার রুখে দাঁড়ানোর ফলে বিজেপি সরকার নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ করাতে ব্যর্থ হয়েছে।
নাজিয়া বিজেপির ‘ডামি’ প্রার্থী বলে যে অভিযোগ তার উত্তরে সাংমা বলেন, এটা প্রপাগাণ্ডা। তিনি যেভাবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে যান, সেভাবে কংগ্রেস প্রতিনিধিরাও প্রধানমন্ত্রীর নিকট যান।
এদিন পরোক্ষে সুস্মিতার সমালোচনা করতেও ছাড়েননি সাংমা। বিশ্বনাথ চারিআলির ঘটনায় মুখ বন্ধ ছিল সুস্মিতার। মুসলমানদের ভোট লাগে। আবার মুসলমানদের নিরপত্তায় নেই তিনি। সবধর্ম ও ভাষাভাষীর মানুষদের নিয়ে এনপিপি দলকে মজবুত করে উঃপূর্বের উন্নয়ন তার কাম্য বলে জানান সাংমা।
খবরসহ আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সব লেখা ফেসবুকে পেতে এখানে ক্লিক করুন এবং নোটিফিকেশনের জন্য লাইক দিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here