মেঘালয় হাইকোর্টের বিচারপতির ‘ভারত হিন্দু রাষ্ট্র’ মন্তব্য মুছে ফেলার নির্দেশ সুপ্রিমকোর্টের

0
তরঙ্গ বার্তা, ডিজিটাল ডেস্ক : মেঘালয় হাইকোর্টের বিচারপতি সুদীপ রঞ্জন সেনের একটি মামলার বিতর্কিত রায়ের কিছু অংশ নিয়ে আপত্তি ওঠায় মেঘালয় হাইকোর্টের রেজিস্ট্রিকে নোটিস পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট। ”ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র ঘোষণা করা উচিত ছিল’’ মেঘালয় হাইকোর্টের বিচারপতির এই মন্তব্যকে প্রত্যাহার করার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।
গত ১২ ডিসেম্বর সেনা সংক্রান্ত এক মামলার রায়ে বিচারপতি সেন লিখেছেন, ‘‘পাকিস্তান নিজেকে মুসলিম রাষ্ট্র ঘোষণা করেছিল। ভারত যেহেতু ধর্মের ভিত্তিতে ভাগ হয়েছিল, তাই তখনই একে হিন্দু রাষ্ট্র ঘোষণা করা উচিত ছিল। কিন্তু ভারতকে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র ঘোষণা করা হয়।’’
তিনি লিখেছেন, ‘‘আজও পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানে হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, পার্সি, খাসি, জয়ন্তীয়া ও গারোদের নির্যাতন করা হয়। দেশ ভাগের সময়ে যে হিন্দুরা ভারতে এসেছিলেন, আজও তাঁদের বিদেশি মনে করা হয়। এটা অযৌক্তিক, অবৈধ এবং স্বাভাবিক ন্যায়বিচারের পরিপন্থী।’’
এর পরিপেক্ষিতে সোনা খান সহ অন্যান্যরা সংবিধান অবমাননার অভিযোগে সুপ্রীম কোর্টের দারস্থ হয়ে বিতর্কিত বিচারপতি সুদীপ রঞ্জনে’র বিরুদ্ধে মামলা করেন। তারা অভিযোগ পত্রে দাবী করেন যে বিচারপতি সেনের এই রায় “আইনীভাবে ত্রুটিপূর্ণ এবং ঐতিহাসিকভাবে বিভ্রান্তিকর”।
মামলার রায় দানকালে সুপ্রীম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ নেতৃত্বাধীন ব্যাঞ্চ মেঘালয় হাইকোর্টের রেজিষ্টার কে নোটিশ পাঠিয়ে বিচারপতি সেনের করা বিতর্কিত মন্তব্যটি হাইকোর্টের রায় সংক্রান্ত রেজিষ্ট্রি থেকে তুলে নিয়ে মুছে ফেলে দেয়ার নির্দেশ দেয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here