জো বাইডেনকে মোদি সরকার ও আরএসএস- এর প্রতি কঠোর হওয়ার আহ্বান ভারতীয় আমেরিকানদের

0
ছবিঃ সংগৃহীত

ভারতীয় আমেরিকানরা মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে মোদি সরকার ও আরএসএস- এর বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। পাশাপাশি তাঁরা মোদির ‘কর্তৃত্ববাদী শাসনের’ বিরুদ্ধে কথা বলারও আহ্বান জানিয়েছে। এমনকি আরএসএস- এর মতো জঙ্গি হিন্দু সংগঠনের সাথে যুক্ত ব্যক্তিদের থেকেও দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন সেদেশে বসবাসকারী ভারতীয়রা।

ওয়াশিংটন ডিসিতে জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি পর্বে এই ভারতীয় আমেরিকানরা বাইডেনের প্রতি এই আর্জি জানায়। এর পরেও একই বিষয়ে তাঁরা জো বাইডেনকে তাদের আর্জি স্মরণ করিয়ে দেয়।

ভারতে চলমান সহনশীলতার প্রসঙ্গ টেনে ভারতীয় আমেরিকা প্রবাসীরা বলেন, ব্যক্তিগত স্বাধীনতা, সংখ্যালঘুদের উপর প্রকাশ্য নিপীড়ন এবং দলিতদের উপর নৃশংসতার জন্য ভারতের অসম্মান হচ্ছে। ভারতীয় এই দলটি নির্বাচিত ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে একটি চিঠি দিয়ে তাদের হাউজ বিল এইচ, রেস ৭৪৫এর সমর্থন জানাতে বলেছে।

এই হাউজ বিল এইচ, রেস ৭৪৫ হচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের একটি প্রস্তাব। যা ভারতের কাশ্মীর ইস্যুর ওপর নেওয়া হয়েছিল। এতে, “ভারতকে জম্মু ও কাশ্মীরের যোগাযোগ ও গণ- বন্দিদের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞাগুলি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দ্রুত সমাপ্ত করার এবং সমস্ত কাশ্মীরের মানুষের ধর্মীয় স্বাধীনতা সংরক্ষণ করার আহ্বান জানানো হয়েছিল।”

প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময় বাইডেন বলেছিলেন, “কাশ্মীরের সমস্ত মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য ভারত সরকারের উচিত সমস্ত প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া। ওই সময় বাইডেন আরো বলেছিলেন, ‘মতবিরোধের উপর বিধিনিষেধ, যেমন শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ রোধ করা বা ইন্টারনেট বন্ধ করা বা গতি কমিয়ে দেওয়া প্রভৃতি গণতন্ত্রকে দুর্বল করে দেয়।’

ভারতীয় প্রবাসীরা বলেন, মোদি সরকার সংখ্যালঘু অধিকার রক্ষার জন্য কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। নাগরিকত্ব সংশোধন আইন বা সিএএ প্রণয়ন করে ভারতে ধর্মনিরপেক্ষতার অনুভূতিকে ধূলিস্যাৎ করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

ভারতীয় আমেরিকানরা বাইডেনকে তাঁর নির্বাচনি প্রচারের সময়ের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেন, ‘ভারতে সিএএ এবং এনআরসি এনে লক্ষ লক্ষ ভারতীয় মুসলমানকে বঞ্চিত করার প্রসঙ্গ এনে আপনি আপনার নির্বাচনি প্রচারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন’। কাজেই এখন সেই উদ্বেগের প্রতিবিধানের চেষ্টা করুন ‘।

ভারতীয় আমেরিকানরা চিঠিতে আরো বলেন, ‘বিজেপি হচ্ছে আরএসএস বা রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের একটি অনুমোদিত রাজনৈতিক দল। আর খোদ আরএসএস হলো একটি হিন্দু আধাসামরিক সংস্থা। যারা বিশ্বাস করে যে ভারত কেবলমাত্র হিন্দুদের দেশ। অন্যান্য সংখ্যালঘু গোষ্ঠীকে তারা শত্রু বা অনুপ্রবেশকারী মনে করে।’

আমেরিকার এই ভারতীয় প্রবাসীদের মধ্যে বিভিন্ন সংগঠনের লোক ছিলেন যারা মানবাধিকার রক্ষার জন্য কাজ করে চলেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here