বিসিসিআই-এর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান আইসিসির, তবে কি ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ হবে বিশ্বকাপে?

0
ছবি : সংগৃহিত
তরঙ্গ বার্তা, স্পোর্টস ডেস্ক : যেসব দেশ সন্ত্রাসীদের আশ্রয় দেয় তাদের বিষয়ে কঠিন হতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি) অনুরোধ করেছিল বিসিসিআই। তবে বোর্ডের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। আইসিসি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে, এসব বিষয়ে তাদের কোনো ভূমিকা নেই। ফলে বিষয়টি আর এগোবে না।
গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীরে পাকিস্তানের হামলার পর বিশ্ব ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থার কাছে টিঠি লেখে বিসিসিআই। তাতে যেসব দেশ সন্ত্রাসবাদকে প্রশ্রয় দেয় তাদের সঙ্গে সর্ম্পক কঠিন করতে শীর্ষ বোর্ড এবং সহযোগী সদস্যদের অনুরোধ জানায় বিসিসিআই। তবে চিঠিতে স্পষ্টভাবে পাকিস্তানের নাম উল্লেখ করেনি বোর্ড।
পুলওয়ামা কাণ্ডে পাকিস্তান-ভারতের রাজনৈতিক অবস্থার অবনতি ইতিহাসের তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। এর প্রভাব পড়েছে দুই দেশের ক্রীড়া সম্পর্কেও। আসন্ন বিশ্বকাপে দুই চিরপ্রতদ্বন্দ্বীর ম্যাচ হওয়া নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মধ্যে ক্রিকেটের বৈশ্বিক আসর (বিশ্বকাপ) থেকে পাকিস্তানকে পুরোপুরি নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে আইসিসিতে চিঠি লেখার উদ্যোগ নিয়েছিল বিসিসিআই।
বোর্ডের ঊর্ধ্বতন এক কমকর্তা জানিয়েছেন, যাহোক; ক্রিকেটের গভর্নিং বডি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, বিশ্বকাপে অংশ নিতে কোনো সহযোগী সদস্যকেই বাধা দেয়া হবে না। সবাই স্বতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করতে পারবে। বিশ্ব ক্রিকেটযজ্ঞে কাউকে অংশগ্রহণ থেকে বিরত রাখতে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হবে না। এরকমটি হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। এমনটি হতে পারে-আমরা জানতাম। তবুও সুযোগ নিয়েছিলাম।
আইসিসি জানায়, কোনো দল কারো বিপক্ষে খেলবে কি না-এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে দেশটির সরকার। এ বিষয়ে নাক গলাবে না সংস্থা। কোনো ভূমিকাও নেই।
আসছে ৩০ মে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলসে গড়াবে আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ-২০১৯। ১৬ জুন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হওয়ার কথা ভারত-পাকিস্তান ব্যাট বলের যুদ্ধ। দুই চিরবৈরি দুই দেশের সীমান্তে বিদ্যমান চরম উত্তেজনার মুখে এখন পাক-ভারত মহারণ হয় কি না-তাই দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here