উত্তর করিমগঞ্জে আলফা নেতা অনুপ চেতিয়াকে সংবর্ধনা

0
রুহুল কুদ্দুস, তরঙ্গ বার্তা, করিমগঞ্জঃ গতকাল গ্রীণ ইণ্ডিয়া ফাউণ্ডেশনের চেয়ারম্যান তথা প্রাক্তন এআইউডিএফ নেতা সাহাবুল ইসলাম চৌধুরী (পারুল) সহ অন্যান্যদের উদ্যোগে বটরশিস্থ কার্যালয়ে আত্মসমর্পণকারী আলফা নেতা অনুপ চেতিয়াকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।
এ উপলক্ষে দুই নেতা এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়ে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বিরোধীতা নিয়ে বিশদ আলোচনা করেন। আলোচনায় প্রাক্তন আলফা নেতা বলেন, অসমবাসীর ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া অসমকে বিদেশীমুক্ত করা সম্ভব নয়। রাজ্যের সর্বস্তরের জনগণকে ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। এনআরসি থেকে বৈধ নাগরিকের নাম বাদ গেলে আবারো আন্দোলনে নামবেন বলে আলোচনায় উল্লেখ করেন।
আলোচনা সভায় সাহাবুল ইসলাম চৌধুরী তাঁর বক্তব্যে আলফা নেতার উদ্দেশ্যে বলেন, অসমের সকল মুসলমান খিলঞ্জীয়া। কারন ১২০৫ সালে মুসলমানরা আসামে আসেন এবং এর অনেক পরে ১২৩৫ সালে আহোমরা আসামে এসে বসবাস শুরু করেন। তাছাড়া স্বাধীন ভারতের আগে ১৯৪১ সালে কিছু মুসলিম মানুষদেরকে অন্য জায়গা থেকে আসামে আনা হয়েছে। কিন্তু ১৯৪১ সাল থেকে আজ পর্যন্ত কোন মুসলমান বাংলাদেশ থেকে আসেনি এবং আসার কোন প্রশ্নই উঠেনা।
সাহাবুল ইসলাম আলফা নেতার উদ্দেশ্যে আরোও বলেন, বর্তমানে ভারতবর্ষে মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষকে ধ্বংস করার লক্ষ্যে আরএসএস, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, বজরং দল ও তাদের রাজনৈতিক সংগঠণ বিজেপি এক যড়যন্ত্র রচনা করেছে।
তারা আসামের বাঙ্গালী মুসলমানদেরকে অসমীয়া ভাষাগোষ্ঠীর কাছে বাংলাদেশী প্রতিপন্ন করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করছে। অথচ মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশ ছেড়ে হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ ভারতে মুসলমানদের আসার কোন যুক্তি নেই। তিনি প্রসংগক্রমে আলফা নেতাকে জানান, আসামকে সম্পুর্ণ বিদেশী মুক্ত করার সাথে সাথে মুসলমানদেরকে বাংলাদেশী অপবাদমুক্ত করতে ইতিমধ্যে আলফা নেতা জীতেন দত্ত ও মৃণাল হাজারিকাদের নিয়ে গুয়াহাটী, নঁগাও সহ অন্যান্য জেলায় বেশ কয়েকটি প্রকাশ্য জনসভা করে বিজেপি’র নাগরিকত্ব বিল বিরোধীতার সাথে সাথে মুসলমানদেরকে বাংলাদেশী সাজানোর ষড়যন্ত্রের কথা তুলে ধরেছেন।
আলফা নেতা অনুপ চেতিয়া আশ্বাস দিয়ে বলেন, তাদের আন্দোলন কোন ধর্ম বা ভাষাবাসীদের বিরোদ্ধে নয় বরং আসামকে বিদেশীমুক্ত করে রাজ্যকে বাঁচাতে।
গতদিনের আলোচনা সভা সুদুর প্রসারী ফল বয়ে আনবে বলে উপস্থিত সকলেই আশা ব্যক্ত করেন। উল্লেখযোগ্যদের মধ্য থেকে উপস্থিত ছিলেন, গ্রীণ ইণ্ডিয়ার আশরাফুল হক চৌধুরী শাপলা, সিমান্ত যুব পরিষদের ফকরুল ইসলাম, কমরুল হক চৌধুরী, উমের চৌধুরী, ফয়সল আহমদ, আমসা’র মনসুর আহমদ,জীবনদ্বীপ এনজিও’র পক্ষে জয়নাল আবেদীন সহ অনেক সংগঠণের কর্মকর্তা। তারা সবাই গামছা দিয়ে নিজ সংগঠণের পক্ষে অনুপ চেতিয়াকে বরণ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here