ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও ইসরায়েলে করোনা আক্রান্ত হলেন ২৪০ জন, বাড়ছে উদ্বেগ

0

ভ্যাকসিন নিয়ে নতুন করে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে ইসরায়েলে। দেখা গেছে ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও লোক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন ইসরায়েলে। তবে কী করোনা ভ্যাকসিন কোনো কাজে আসবেনা? ইসরায়েলের ঘটনাটি সামনে আসার পর স্বাভাবিক ভাবেই এরকম প্রশ্ন সামনে আসছে।

মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজার ও বায়োএনটেকের তৈরি ভ্যাকসিন গ্রহণের পরও ইসরায়েলে প্রায় ২৪০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে সেখানকার এক স্থানীয় সংবাদমাধ্যম ।

এই ভ্যাকসিন মানুষের দেহে কার্যকর অ্যান্টিবডি তৈরি শুরু করতে সময় নেওয়ায় এ জটিলতা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ফাইজারের তৈরি এ ভ্যাকসিনের দুইটি ডোজ নিতে হয়। সংশ্লিষ্ট গবেষকদের দাবি, প্রথম ডোজ দেওয়ার আট থেকে দশদিন পর কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে ৫০ শতাংশ ইমিউনিটি তৈরি হয়। প্রথম ডোজের ২১ দিন পর দিতে হয় দ্বিতীয় ডোজ। আর এর মাত্র এক সপ্তাহের মাথায় ৯৫ শতাংশ ইমিউনিটি অর্জিত হয়। অর্থাৎ ভ্যাকসিন গ্রহণের পরও আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা ৫ শতাংশ।

মহামারি শুরু হওয়ার পর পরই ইসরায়েল টিকা পাওয়ার জন্য ফাইজার-বায়োএনটেকের সঙ্গে সমঝোতা সেরে ফেলে। এর পর দেশটি ধাপে ধাপে ফাইজারের টিকার চালান নিশ্চিত করে। এই টিকাটি মাইনাস ৭০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। ইসরায়েলে ১৯ ডিসেম্বর থেকে ফাইজার/বায়োএনটেকের তৈরি ভ্যাকসিন প্রয়োগের কাজ শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও প্রেসিডেন্ট রিউভেন রিভলিন। সেদেশে প্রতিদিন দেড় লাখ মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। ষাটোর্ধ ব্যক্তি ছাড়াও স্বাস্থ্য-কর্মী এবং যারা ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে টিকা দেওয়ার ব্যাপারে তাদেরকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে।

ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের মধ্যে এক সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে এ পর্যন্ত ২৪০ জন করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন। তবে, এ ধরনের সংক্রমণ ঠেকাতে প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ওই মাসে কোভিড-১৯ বিরোধী নির্দেশনাগুলো মেনে চলার ওপর জোর দিলেই এই সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইসরায়েলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর হাজারে একজনের মধ্যে হালকা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। এর মধ্যে রয়েছে দুর্বলতা, মাথা ঘোরা জ্বর আসা, ইনজেকশন দেওয়ার স্থানে ব্যথা, ফোলাভাব এবং লাল হয়ে যাওয়া। তবে, দুশ্চিন্তার কোনো কারণ নেই বলেও আশ্বস্ত করা হয়েছে সরকারিভাবে। দ্বিতীয় ডোজ নেওয়া পর্যন্ত যদি কোভিড প্রটোকল যথারীতি মেনে চলা হয় তাহলে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা পাওয়া যাবে বলে অভয় দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য বিভাগ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here