বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায় ধর্মান্তরকরণের হুমকি দিয়ে যুবককে মারধর, সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

0
ছবি: নিজস্ব
তরঙ্গবার্তা প্রতিনিধি, আগরতলা: লকডাউনের মধ্যেও সমান তালে এগিয়ে চলছে ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় সমাজ দ্রোহীদের বাড়বাড়ন্ত। রাজধানী এখন সমাজ দ্রোহীদের ধারা অপরাধের মৃগয়া ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। শ্লীলতাহানি থেকে শুরু করে ছিনতাই সংখ্যালঘুদের উপর আক্রমণ কোনটাই বাদ যায়নি। গতকাল রাতে ধর্মান্তরকরণের হুমকি দিয়ে এক সংখ্যালঘু যুবককে মারধর করার নাক্কারজনক ঘটনা ঘটে বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায়।
অভিযোগে জানা গিয়েছে, বুধবার রাত নয়টার দিকে আগরতলা রামনগর বর্ডার গোলচক্করের বাসিন্দা আবুল হোসেন চৌধুরী তার বাড়ির গেটের পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবেশী ব্যক্তিদের সাথে কথা বলছিলেন। এমন সময় বিজেপি ও আরএসএসের কর্মী যুটন দাস এবং বিকাশ দাস কোনরকম কারণ ছাড়াই আবুল হোসেন চৌধুরীর উপর লাঠি দিয়ে আক্রমণ করে গুরুতর আহত করে। দুষ্কৃতীরা আবুল হোসেন চৌধুরীকে বলে যায়, এই এলাকায় সংখ্যালঘুরা থাকতে হলে হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করতে হবে। না হলে তাদের উপর এরকম আক্রমণ অব্যাহত থাকবে।

এই ঘটনার পর আবুল হোসেন চৌধুরী পশ্চিম আগরতলা থানায় দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন। কিন্তু ওই দুষ্কৃতীরা ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় আশ্রয়ের ফলে গ্রেফ্তার তো দুরের কথা প্রশাসনের তরফে এখনও পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ৷ স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এর আগেও ওই দুষ্কৃতীদের উৎপাত থেকে রক্ষা পেতে এলাকাসীর তরফ থেকে একাধিকবার এদের বিরুদ্ধে মামলা করা হলেও  বিশেষ পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।
এতে স্বাভাবিকভাবেই ত্রিপুরা রাজ্যে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন। এহেন পরিস্থিতিতে ওই এলাকার সংখ্যালঘুরা আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন এবং সমাজ দ্রোহীদের প্রতি যথাযথ ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here